অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...
 

যামানার লক্ষ্যস্থল ওলীআল্লাহ, যামানার ইমাম ও মুজতাহিদ, ইমামুল আ’ইম্মাহ, মুহইস সুন্নাহ, ক্বাইয়্যুমুয্ যামান, কুতুবুল আলম, হুজ্জাতুল ইসলাম, সুলত্বানুল আউলিয়া ওয়াল মাশায়িখ, ছাহিবু সুলত্বানিন নাছীর,
মাহিউল বিদয়াহ, রসূলে নুমা, গাউছুল আ’যম, সাইয়্যিদুল আউলিয়া, ইমামুল উমাম, সাইয়্যিদুল খুলাফা, আস সাফফাহ, হাবীবুল্লাহ্, আওলাদে রসূল, রাজারবাগ শরীফ-এর মুর্শিদ ক্বিবলাহ
The Daily Al Ihsan
বিশ্বের সমস্ত দেশ থেকে পঠিত আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত এর
আক্বীদায় প্রতিষ্ঠিত একমাত্র আন্তর্জাতিক ইসলামী পত্রিকা
Arabic .  বাংলা .  Urdu .  English .  Japanese .  Swedish
২৫ মাহে যিলক্বদ, ১৪৩৫ হিজরী, ২৩ রবি’, ১৩৮২ শামসি
২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৪ ঈসায়ী সন, ৬ আশ্বিন, ১৪২১ ফসলী সন
ইয়াওমুল আহাদি (রোববার)
al-ihsan al-ihsan al-ihsan
al-ihsan
মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার দোয়ার বরকতে মুসলমানদেরকে জুলুম নির্যাতন করার ফলে জুলুমবাজ কাফিরদের উপর খোদায়ী গজব
  • <font class='SlideCaptionBN'>মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসের পূর্বে প্রায় ৪৫ বর্গকিলোমিটার জুড়ে </font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>দাবানল ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। </font>
  • <font class='SlideCaptionBN'>ভয়াবহ এই দাবানলে অন্তত দুই হাজার বাড়ি ধ্বংস হওয়ার উপক্রম হয়েছে।</font>
Al Baiyinaat : e Version Al Ihsan : e Version
সাইয়্যিদুল আ’ইয়াদ উপলক্ষে প্রকাশিত
পোষ্টার, স্ক্রিনসেভার, ওয়ালপেপার সমুহ ডাউনলোড করুন।
বিশ্বের সমস্ত দেশ ও শহর থেকে পঠিত
ইসলামী শরীয়ত সম্মত একমাত্র পত্রিকা
"দৈনিক আল ইহসান"

বিজ্ঞাপনের মুল্য তালিকা
নামাজের সময়সূচী
জেলা : ঢাকা ও পার্শ্ববর্তী এলাকা
ওয়াক্তশুরুশেষ
সাহ্‌রীর শেষ সময়০৪:২৬
ফজর০৪:৩২০৫:৪৪
ইশরাক০৬:০৮০৭:২৬
চাশত্‌০৭:২৭১০:৫২
জাওয়াল১১:৫৩যোহর নামায পড়ার পূর্ব পর্যন্ত
যোহর১১:৫৩০৪:১৫
আছর০৪:১৬০৫:৪০
মাগরিব০৬:০৩০৭:১৩
আওয়াবীনবাদ মাগরিব০৭:১৩
ইশা০৭:১৪০৪:২৭
তাহাজ্জুদ১১:১৫০৪:২৭
আগামীকাল ফজর০৪:৩২০৫:৪৫
আগামীকাল সূর্যোদয়০৫:৪৬-
আজ সূর্যোদয়০৫:৪৫-
আজ সূর্যাস্ত০৫:৫৮-
সূত্র: গবেষণা কেন্দ্র- মুহম্মদিয়া জামিয়া শরীফ, ঢাকা

 
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
Saieedul Aaiyad
RajarbagShareef.net
Radio 'Al-Hikmah'
Special Days in Islam
majlisu-ruiatil-hilal
International Voice Room
Noorun Alaa Noor
Donate for Daily Al Ihsan Shareef Donate for Daily Al Ihsan Shareef


» কোরআন শরীফের তরজমা ও তাফছির(তরজমায়ে মুজাদ্দিদে আজম)
» ফিক্বহুল হাদিস ওয়াল আছার
» আহ্‌লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আক্বীদা
» মারিফাতুছ ছাহাবা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম
» আউলীয়া-ই-কিরাম রহমতুল্লাহী আলাইহিম
 
» আত-তাক্বউইমুশ শামসি
» ইসলামের বিশেষ দিন সমূহ
» আহ্‌কামু রমাদ্বানাল মুবারক
» আহ্‌কামুয্‌যাকাত
(যাকাতের হুকুম-আহ্‌কাম)
» বিষয় ভিত্তিক বিশেষ প্রবন্ধ
 
» মাসিক আল বাইয়্যিনাত
» ওয়াজ শরীফ
» ক্বাছীদা আনজুমান
» মক্ববুল মুনাজাত শরীফ
» প্রকাশিত কিতাব সমূহ
 
» ফতওয়া বিভাগ
» সুওয়াল জাওয়াব বিভাগ
» মাসের ফজিলত ও প্রাসঙ্গিক আলোচনা
 
» পত্রিকার মূল সংস্করণ
 
» আপনার মতামত পাঠান
» আর্কাইভ থেকে পড়ুন
 
» সুন্নতি সামগ্রী
» কবিতা
» সবুজ বাংলা ব্লগ

 
মুজাদ্দিদে আ’যম হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম-উনার ক্বওল শরীফ
মহান আল্লাহ পাক তিনি পবিত্র কুরআন শরীফ উনার মধ্যে ইরশাদ মুবারক করেন, “নিশ্চয়ই নাসী কুফরীকে বৃদ্ধি করে। আর নাসী হলো মাসগুলোকে আগ-পিছ করা।”
মুনাফিক ওহাবী ইহুদী সউদী সরকার ইহুদীদের কর্তৃক রচিত ‘উম্মুল কুরা ক্যালেন্ডার’ অনুসরণ করে চাক্ষুস চাঁদ না দেখে পরিকল্পিতভাবে পবিত্র আরবী মাসগুলোকে আগ-পিছ করে এ বছরও পবিত্র হজ্জ নষ্ট করতে যাচ্ছে; যা কাট্টা কুফরীর অন্তর্ভুক্ত।
‘উম্মুল কুরা ক্যলেন্ডারে’ পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার প্রথম তারিখ দেখানো হয়েছে ২৭ রবি’ ১৩৮২ শামসী, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ঈসায়ী, ইয়াওমুল খামীস বা বৃহস্পতিবার। অথচ ২৬ রবি’ ১৩৮২ শামসী, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ঈসায়ী, ইয়াওমুল আরবিয়া বা বুধবার সউদী আরবসহ পৃথিবীর কোথাও পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার চাঁদ দৃশ্যমান হবে না। পবিত্র ৯ই যিলহজ্জ শরীফ উনার দিন সূর্য ঢলার পর থেকে পবিত্র ১০ই যিলহজ্জ শরীফ উনার সুবহে সাদিকের মধ্যে পবিত্র আরাফার ময়দানে উপস্থিত থাকা পবিত্র হজ্জ উনার একটি অন্যতম ফরয।
কাজেই পবিত্র ৯ই যিলহজ্জ শরীফ উনার পূর্বে বা পরে যে কোনোদিন পবিত্র আরাফা উনার ময়দানে উপস্থিত থাকলেও ফরয তরক করার কারণে হজ্জ হবে না।
তাই পবিত্র হজ্জে যাওয়ার পূর্বে প্রত্যেক হাজী ছাহেবকে বিষয়টি নিয়ে গভীর চিন্তা-ফিকির করতে হবে এবং এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।
অতএব, সউদী সরকারের জন্য ফরয হলো- পবিত্র যিলহজ্জ শরীফ মাস উনার চাঁদ চাক্ষুষ দেখে সঠিক তারিখে পবিত্র হজ্জ পালনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা।
ইসলামী শিক্ষা
মেড ইন ইন্ডিয়া
বছরে পুড়ছে ৩০০ কোটি টাকার ৩৯,০০০ ট্রান্সফরমার
তিস্তা ও ফেনী নদীর পানি ভাগাভাগির আশ্বাস ভারতের
জিএসপির সব শর্তই পূরণ হয়েছে: বাণিজ্যমন্ত্রী
সরকারি নির্দেশ অমান্য করে এখনও এনজিওগুলোর ঋণের কিস্তি আদায়
আগামী জুলাই থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা ১০ হাজার টাকা -মোজাম্মেল হক
৭ জেএমবিকে জিজ্ঞাসাবাদ
আলোচিত হত্যাকাণ্ডের জট খুলতে পারে
বিচারকরা রাজনৈতিক দাবার ঘুঁটিতে পরিণত হবেন : খন্দকার মাহবুব
২২ সেপ্টেম্বর সারাদেশে আদালত বর্জন কর্মসূচি
আন্দোলনের মধ্য দিয়েই স্বৈরাচারী সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করা হবে - ফখরুল
আগামীকাল ২০-দলীয় জোটের সকাল-সন্ধ্যা হরতাল
জিএসপি সুবিধা বন্ধ রাখতে অনেক ষড়যন্ত্র হচ্ছে : অর্থমন্ত্রী
পবিত্র মীলাদ শরীফ ও পবিত্র ক্বিয়াম শরীফ উনাদের সঠিক ও গ্রহণযোগ্য ফায়ছালা (৩৯৫)
উত্তম আদবই ঈমান
বেপর্দার কারণে নারী তার চেহারার সৌন্দর্য হারায়
হারাম গান-বাজনা কোনো অবস্থাতেই মুসলমানগণের মোবাইল ফোনের রিংটোন হতে পারে না
আপনাদের মতামত
মুজাদ্দিদে আ’যম সাইয়্যিদুনা ইমাম রাজারবাগ শরীফ উনার মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম উনার মকবুল মুনাজাত শরীফ উনার বেমেছাল রূহানীয়ত সমৃদ্ধ রোব মুবারক উনার ফলেই খোদায়ী গযবে পর্যুদস্ত বিশ্বের সকল কাফির-মুশরিকদের দেশ
বাল্যবিবাহের বিরুদ্ধে বলা মানেই কুফরী করা
একবার ফাঁসির রায় দিয়েও আপীলের নামে দীর্ঘ নাটকীয়তার পর ফাঁসি বাতিল! বিচার বিভাগের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন
৯৭% মুসলমান অধ্যুষিত এ দেশে দুর্গাপূজা উপলক্ষে সরকারি ছুটি বাতিল করা হোক
সম্মানিত ইসলামী শরীয়তে সাক্ষীর জন্য দুই জনই যথেষ্ট, অথচ কুখ্যাত খুনি রাজাকার সাঈদীর যুদ্ধাপরাধের ২৮ জন সাক্ষী দেয়ার পরেও রহস্যজনক কারণে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হলো না
সম্পাদকীয়
সমস্ত প্রশংসা মুবারক খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক উনার জন্য; যিনি সকল সার্বভৌম ক্ষমতার মালিক। সাইয়্যিদুল মুরসালীন, ইমামুল মুরসালীন, নবী আলাইহিমুস সালাম উনাদের নবী, রসূল আলাইহিমুস সালাম উনাদের রসূল, নূরে মুজাসসাম, হাবীবুল্লাহ হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনার প্রতি অফুরন্ত পবিত্র দুরূদ শরীফ ও পবিত্র সালাম মুবারক।
পবিত্র ঈদুল আযহা উনাকে সামনে রেখে দেশের সীমান্ত পথে বানের পানির মতো ঢুকছে মাদক। পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে ভারত থেকে চোরাইপথে আসা পণ্যের তালিকায় এক নম্বরে আছে ফেনসিডিল। এরপর আছে গাঁজাসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মদ। আর বার্মা থেকে দেদারছে আসছে ইয়াবা।
জানা গেছে, বাংলাদেশে মাদকের বড় বড় চালান আসছে ভারত থেকে। বিস্তীর্ণ সীমান্ত পথ দিয়ে মাদকের চালান ঢুকছে দেশে। তবে পবিত্র ঈদ উনাকে সামনে রেখে এ অবস্থা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকছে ফেনসিডিল, হেরোইন, গাঁজা, ইয়াবাসহ নানা মাদক।
নিয়মিত মাদকসেবীদের বাইরে পবিত্র ঈদ উপলক্ষে নতুন গ্রাহক ধরতেই মাদক ব্যবসায়ীদের এত আয়োজন। পবিত্র ঈদ উপলক্ষে তরুণদের হাতে নানা খাত থেকে আসে নগদ টাকা। এছাড়া বাবা-মা, আত্মীয়স্বজন ঈদের সেলামি নামে টাকা দিয়ে থাকে। এসব টাকার বড় একটি অংশ ব্যয় হয়ে থাকে মাদকের পেছনে। তাই মৌসুম ভেবে পবিত্র ঈদ উনাকে সামনে রেখে অসৎ ব্যবসায়ীরা মাদকের মজুদ করছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত থেকে দেদারসে আসছে ফেনসিডিল, গাঁজাসহ নানা ব্র্যান্ডের মদ। অন্যদিকে মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে আসছে ইয়াবা ও হেরোইন। মাদক ব্যবসায়ীরা বলেছে, শাড়ি-কাপড়ের পাশাপাশি পবিত্র ঈদ উনাকে মাদকের বিকিকিনিটাও অনেক বেশি। তাই আমদানিও হচ্ছে বেশি।
ভারতীয় ফেনসিডিলের প্রধান বাজারে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ।
আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তথ্যমতে, দেশে সীমান্তপথে প্রতিদিন গড়ে অন্তত ২ লাখ বোতল ফেনসিডিল ঢুকছে। অবৈধ পথে ফেনসিডিল আমদানিতে দেশের বার্ষিক ব্যয় প্রায় ২ হাজার কোটি টাকারও বেশি। প্রতিদিন গড় ব্যয় কমপক্ষে ৫ কোটি টাকা।
একটি বেসরকারি গবেষণা সংস্থার তথ্য মতে, দেশে প্রতিবছর গড়ে ৭ থেকে সাড়ে ৭ কোটি বোতল ফেনসিডিল অবৈধ পথে আসছে। সীমান্তের ওপারে ভারতের অর্ধশতাধিক অবৈধ কারখানায় অপরিশোধিত কোডিন দিয়ে বেশি নেশা উদ্রেক করে এমন ফেনসিডিল তৈরি করে বাংলাদেশে পাচার করা হচ্ছে।
এদিকে বাংলাদেশের বিশাল সীমান্তজুড়ে ভারতীয় সীমান্ত সংলগ্ন ভূখ-ে ভারতীয় কুচক্রী মুশরিকরা গড়ে তুলেছে অনেক ফেনসিডিল কারখানা। তাছাড়া হেরোইন প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানাও গড়ে তুলেছে তারা। ভারতীয় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও সীমান্ত প্রহরীরা দেখেও না দেখার ভান করছে। নিরীহ গরু ব্যবসায়ীদের গুলি করে মারলেও দুর্ধর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদেরকে যাতায়াত নিরপত্তা দেয়।
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ফ্যামিলি হেলথ ইন্টারন্যাশনালের হিসাব অনুযায়ী, সারা দেশে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীর সংখ্যা লক্ষাধিক। এর মধ্যে নারী ব্যবসায়ীর সংখ্যা ১০ শতাংশ।
সারা দেশে দিন দিন বাড়ছে মাদকাসক্তের সংখ্যা। এক সময় বেকার আর হতাশাগ্রস্তরা বিপথগামী হয়ে নেশার জগতে পা বাড়াতো। আর এখন মাদক সেবন পরিণত হয়েছে হাল-ফ্যাশনে। অল্পবয়সী ছেলেমেয়ে থেকে শুরু করে নেশার হাতছানিতে পা বাড়াচ্ছে বিভিন্ন বয়স ও পেশার নারী-পুরুষ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মরণ নেশা এখন ছড়িয়ে পড়েছে ধনীর দুলালদের মাঝেও। এক সময় এ ব্যবসার মাফিয়ারা মাদক পাচারে আন্তর্জাতিক রুট হিসেবে ব্যবহার করতো বাংলাদেশকে। আর এখন বাংলাদেশকেই তারা মাদক ব্যবসার টার্গেটে পরিণত করেছে। ধীরে ধীরে ছড়িয়ে দিয়েছে মরণ নেশা।
মাদক সেবন ও বিক্রিতে পিছিয়ে নেই মেয়েরাও। পুরিয়া হিসেবে হেরোইন ও গাঁজা তরুণ-তরুণীরা হাতব্যাগে করে এমনভাবে বিক্রি করে যে সহজে ধরা যায় না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে নারী মাদকসেবীদের বড় একটি অংশ বহিরাগত। এছাড়া বুয়েট, ইডেন, বদরুন্নেসা মহিলা কলেজের ছাত্রীরাও আশঙ্কাজনকহারে মাদকের ছোবলে আটকে পড়ছে।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদকাসক্ত শিক্ষার্থীরা নিজেদের ধ্বংসের পাশাপাশি অভিভাবকদেরও প্রচুর অর্থের অপচয় করছে। এ বিষয়ে এক মাদকাসক্ত ছাত্র জানায়, ‘নেশার জন্য আমার প্রতি মাসে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা খরচ হয়। সেমিস্টার ফি, টিউটরিয়াল ফি ইত্যাদির কথা বলে বাসা থেকে টাকা নিই।’ এরকম মরণদশা আরো বহু ছাত্র তথা যুবকের অর্থাৎ মুশরিক হিন্দু নিয়ন্ত্রিত ভারত আর মুশরিক বৌদ্ধ নিয়ন্ত্রিত মায়ানমার মাদক দিয়ে এদেশের মেধাবী ছাত্র তথা যুব সমাজকে ধ্বংস করে দিতে চাইছে।
দেশে মাদকসেবীর প্রকৃত সংখ্যা কত তার সঠিক পরিসংখ্যান কারো কাছে নেই। তবে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ফ্যামিলি হেলথ ইন্টারন্যাশনালের হিসাব অনুযায়ী, এ সংখ্যা অর্ধকোটি ছাড়িয়ে গেছে অনেক আগে। প্রকৃত হিসেবে এ সংখ্যা কোটিরও বেশি। দেশে বর্তমানে ৩২ ধরনের মাদক সেবন চলছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, অবৈধ মাদক আমদানির জন্য প্রতি বছর ১০ হাজার কোটি টাকারও বেশি দেশী মুদ্রা পাচার হয়ে যাচ্ছে।
পর্যবেক্ষক মহল জানায়, ১৯৯০ সাল থেকে যদিও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর কাজ করছে, কিন্তু আইন প্রয়োগের অভাব এবং আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের দুর্নীতিপরায়ণতার কারণে এদেশে মাদকের ব্যবহার বাড়ছে। এক্ষেত্রে সরকারের ভূমিকা অন্ধ, বোবা আর বধিরের মতোই।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি একটি ফ্যাশনযুক্ত শ্লোগান উঠেছে, ‘মাদককে না বলো।’ অথচ পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের মধ্যে মাদকের বিরুদ্ধে যা বলা হয়েছে, তা প্রচার করলে মুসলমানগণ উনাদের অন্তরে এমনিতেই দাগ কাটার কথা। কিন্তু পবিত্র কুরআন শরীফ ও পবিত্র সুন্নাহ শরীফ উনাদের মহান বাণী প্রচার করা হচ্ছে না, যা করা হচ্ছে তা হলো- মনগড়া ও ফাঁপা বুলি।
মূলত, মাদকের বিরুদ্ধে পবিত্র দ্বীন ইসলাম উনার অনুভূতি ও প্রচার এক সময় জোরদার ছিল। কিন্তু ইদানীংকালে ধর্মব্যবসায়ীদের নিষ্ক্রিয়তা সে মূল্যবোধকে নিস্তেজ করে দিয়েছে। নাউযুবিল্লাহ! হালে হযরত মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার ক্বওল শরীফ ও উনার মুবারক লেখনী সে অবলুপ্ত অনুভূতিতে জাগরণ তৈরি করছে। সুবহানাল্লাহ!
তবে এ ক্ষেত্রে বিশেষভাবে প্রণিধানযোগ্য যে, মুজাদ্দিদে আ’যম রাজারবাগ শরীফ উনার সাইয়্যিদুনা মামদূহ হযরত মুর্শিদ ক্বিবলা আলাইহিস সালাম তিনি শুধু তাত্ত্বিক ফতওয়া মুবারকই দিচ্ছেন না; পাশাপাশি দিচ্ছেন মাদক থেকে বিরত হওয়ার বেমেছাল রূহানী কুওওয়াত মুবারক। যা মাদকসেবীদের আনন্দের সাথেই মাদক থেকে বিরত রাখছে।
খালিক্ব মালিক রব মহান আল্লাহ পাক তিনি আমাদের সবাইকে হযরত মুজাদ্দিদে আ’যম আলাইহিস সালাম উনার নেক ছায়াতলে কবুল করুন। (আমীন)
বিশেষ প্রতিবেদন
দুর্নীতি বন্ধে প্রধানমন্ত্রীর অপারগতা প্রকাশ:
সারাদেশে অবাধে চলছে ভুয়া প্রকল্প ও ভুয়া বিলের ছড়াছড়ি
তথা সরকারি-বেসরকারি হাজার রকমের দুর্নীতি- (১৪৮)
১৯৭১-এ মওদুদীবাদী জামাতের মুখপত্র দৈনিক সংগ্রাম-এর ভূমিকা (পর্ব-৮)
সন্ত্রাসবাদীরা নিবৃত্ত হলেও সন্ত্রাসবাদ নির্মূল হয়নি-৩
যে ইতিহাস বাঙালি মুসলমানরা জানে না:
আজকে যেই ভারতীয় মুসলমানরা নিষ্পেষিত-নির্যাতিত-অবহেলিত-নিগৃহীত ॥ অথচ দেশবিভাগের আগে তারাই ছিল গোটা ভারতবর্ষে সবচেয়ে ধনী, সবচেয়ে শিক্ষিত, সবচেয়ে অগ্রগামী।
১৮৮৬ সালে উত্তরপ্রদেশের মুসলমানরা প্রশাসন ও বিচারবিভাগের ৪৫ শতাংশ পদ দখল করে ছিল জনসংখ্যার মাত্র ১৩ শতাংশ হয়েও!
হিন্দুদেরকে ‘ভাই’ ডাকার কাফফারা দিতে গিয়ে, অখ- ভারত চাওয়ার আক্কেল সেলামী দিতে গিয়ে, সর্বোপরি দেওবন্দীদের প্ররোচনায় বিভ্রান্ত হয়ে আজ ভারতীয় মুসলমানরা তাদের সেই সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য পুরোটাই হারিয়েছে। তারা অট্টালিকা থেকে জরাজীর্ণ বস্তিতে নেমে এসেছে।
ফিরে দেখা ইতিহাস
ঘাতক রাজাকার, আল-বাদর মওদুদী জামাতী, দেওবন্দী খারিজী, ওহাবী সালাফীদের দিনলিপি
২০ সেপ্টেম্বর ১৯৭১ ঈসায়ী
দেশের খবর
ঠাকুরগাঁওয়ে সাম্প্রদায়িক বিএসএফ’র গুলিতে ৩ বাংলাদেশি আহত
নওগাঁয় ১ বাংলাদেশি অপহরণ:
ব্যাংকের ফাউন্ডেশন থাকা বাধ্যতামূলক হচ্ছে
র‌্যাব-পুলিশের মনোবল ভাঙ্গার চেষ্টা হচ্ছে : তথ্যমন্ত্রী
‘ব্যাংক হিসাবধারী তরুণরাই হবে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির চালিকাশক্তি’
ব্যাংক খাতে বাড়ছে সরকারের ঋণ
বগুড়ায় বোমাসহ দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার
আজ ফের জামাতের ২৪ ঘন্টার হরতাল
আনন্দবাজার পত্রিকার দাবি
তৃণমূলের সহযোগিতায় পশ্চিমবঙ্গে জামাতের ঘাঁটি
অপমানে ঋণগ্রস্ত রিকশাচালকের আত্মহত্যা
অনেক সমস্যা মোকাবেলা করে এগিয়ে যেতে হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ইসলামী ব্যাংকের কোটি টাকা অনুদান
এমআরপি নিয়ে ভোগান্তিতে সৌদি প্রবাসীরা
এরশাদ ও রাঙ্গাপন্থীরা মুখোমুখি
ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিরোধ করতে বললেন এরশাদ
গাজীপুরে পোশাক কারখানার অর্ধশতাধিক শ্রমিক অসুস্থ্য : ১ জনের মৃত্যু
ঢাকার যানজট কমাতে প্রাইভেটকার নিয়ন্ত্রণের দাবি
এ পর্যন্ত ১৫ বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু
সাতক্ষীরায় ফেনসিডিলসহ কনস্টেবল আটক
Anjuman-e Al Baiyinaat, Sweden
কবিতা






For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Alaihis Salam
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal